fbpx
Ad imageAd image

পারমাণবিক যুগে বাংলাদেশ

কিশোরগঞ্জ পোস্ট
কিশোরগঞ্জ পোস্ট

দেশে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে আরও এক ধাপ এগিয়ে বাংলাদেশ।রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের জ্বালানি হিসাবে আসা প্রথম চালানের ইউরেনিয়াম বাংলাদেশের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেছেন

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক সংস্থা রোসাটমের মহাপরিচালক আলেক্সি লিখাচেভ।এ হস্তান্তর অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।এ হস্তান্তর প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহারের যুগে প্রবেশ করেছে।

দেশে এখন পর্যন্ত পারমাণবিক জ্বালানীর ৪টি চালান এসেছে।প্রকল্পের শিডিউল অনুযায়ী ২০২৪ সালে প্রথম ইউনিটের কমিশনিং হবে। প্রথম ইউনিটের কমিশনিংয়ের জন্য ১৬৩টি অ্যাসেম্বলড ফুয়েল প্রয়োজন হবে। এজন্য সাতটি চালানে ১৬৮টি অ্যাসেম্বলড ফুয়েল এ বছরের মধ্যে দেশে এসে পৌঁছাবে।’বিশ্বে পারমাণবিক শক্তি ব্যবহারকারী দেশের তালিকায় ৩৩তম সদস্য বাংলাদেশ। আর এই ঘটনার মধ্য দিয়ে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ক্ষেত্রে একটি নতুন অধ্যায়ের সূচনা হলো। দুই ইউনিটের রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রথম ইউনিটের সামগ্রিক কাজের ৯০ শতাংশ ইতোমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে।

নির্মাণকাজ শেষ হলে রূপপুর কেন্দ্রের দুটি ইউনিটে ২ হাজার ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে পারবে বাংলাদেশ।একবার জ্বালানি দেওয়ার পর ১৮ মাস নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে।

কমবে বিদ্যুৎ উৎপাদনের খরচও।এই বিদ্যুৎকেন্দ্রটি দেশের ক্লিন এনার্জি মডেল হিসাবে বিবেচিত হবে।যা থেকে দীর্ঘমেয়াদে পাওয়া যাবে সাশ্রয়ী, নির্ভরযোগ্য ও মানসম্মত বিদ্যুৎ।

- Advertisement -

Subscribe

Subscribe to our newsletter to get our newest articles instantly!

ফলো করুন

সোশ্যাল মিডিয়াতে আমাদের সাথে থাকুন
জনপ্রিয় খবর
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *