fbpx
Ad imageAd image

ডেমোক্র্যাটরা কি প্রার্থী বদলাবে, নাকি বাইডেনেই ভরসা

কিশোরগঞ্জ পোস্ট
কিশোরগঞ্জ পোস্ট

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে প্রথম মুখোমুখি বিতর্কে অংশ নিয়েছেন দুই প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেন এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প। বিতর্কে আক্রমণাত্মক ট্রাম্পের সামনে বারবার খেই হারিয়ে ফেলেছেন ৮১ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট বাইডেন। নিজেদের প্রার্থীর এমন পারফরম্যান্সে ডেমোক্রেটিক দলের সদস্যরা হতাশ।

এ নিয়ে ডেমোক্র্যাট ভোটারদের মধ্যে অসন্তোষ ও আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। তাদের অসন্তোষ ও আতঙ্কের মাত্রা এতই প্রবল যে তারা বাইডেনকে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে বলছেন। এমনকি নিজেদের মধ্যে ব্যক্তিগত আলোচনায় বাইডেনের বিকল্প হিসেবে কে দলের প্রার্থী হতে পারেন, তা নিয়ে আলোচনা করছেন।

- Advertisement -

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন যে পারফরম্যান্স করেছেন, তাতে ডেমোক্র্যাটরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। আতঙ্ক থেকে তারা বাইডেনের বদলে কে নির্বাচন করতে পারেন, তা নিয়ে সক্রিয় আলোচনা শুরু করেছেন।

তিনজন সম্ভাব্য ডেমোক্রেটিক প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর ঘনিষ্ঠ ভোটকৌশলী বলেছেন, বিতর্কে ট্রাম্পের কাছে বাইডেন ধরাশায়ী হলে তাদের কাছে একের পর এক বার্তা আসতে থাকে। এসব বার্তা দলের ভোটার ও অর্থদাতারা পাঠান। আরেকজন ভোটকৌশলী বলেছেন, কিছু বার্তায় তাদের প্রার্থী যেন বাইডেনের বিকল্প হিসেবে এগিয়ে যায় সে আবেদনও এসেছে।

অন্য একজন উপদেষ্টা বলেছেন, বাইডেন যা করেছেন তা বিপর্যয় হিসেবে অ্যাখ্যা দিয়ে অন্তত অর্ধডজন মূল অর্থ দাতা বার্তা পাঠিয়েছেন। এই জন্য দলের কিছু একটা করতে হবে বলে জানান তারা। তবে এটাও মানতে হবে বাইডেন নিজ থেকে সরে না দাঁড়ালে এখন কোনো কিছু করা সম্ভব না।

- Advertisement -

ডেমোক্র্যাট পার্টির একজন অর্থদাতা ও বাইডেনের সমর্থক বলেন, প্রেসিডেন্টের এখনই নির্বাচনী প্রচারে ইতি টানার সময় এসেছে।ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে হয়েছে। তিনি এতটাই বাজে করেছেন যে কেউ ট্রাম্পের কথার সত্য-মিথ্যা যাচাই-বাছাই করতে যাবে না।

- Advertisement -

বাইডেন এতো বাজেভাবে কোণঠাসা হলেও তা সামাল দেয়ার চেষ্টা করছে তার প্রচারশিবির। তার একজন উপদেষ্টা বলেছেন, তিনিই একমাত্র ব্যক্তি যিনি ডোনাল্ড ট্রাম্পকে পরাজিত করেছেন। তিনি এবারও তাই করবেন। বাইডেন নির্বাচন থেকে সরে দাড়াবেন কিনা, এমন প্রশ্ন করা হলে নির্বাচনী প্রচারের এক সহযোগী বলেন, ‘অবশ্যই না।’

Subscribe

Subscribe to our newsletter to get our newest articles instantly!

ফলো করুন

সোশ্যাল মিডিয়াতে আমাদের সাথে থাকুন
জনপ্রিয় খবর
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *