fbpx
Ad imageAd image

টেলিটকেরও হতে পারে অডিট

টেলিটকেরও হতে পারে অডিট

কিশোরগঞ্জ পোস্ট
কিশোরগঞ্জ পোস্ট

গ্রামীণফোন, রবি ও বাংলালিংক তিন অপারেটরের কাছে ১৪ হাজার কোটি টাকার বেশি অডিট আপত্তি পেয়েছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থা। যার কিছুটা আদায় হয়েছে আর বাকিটা আদায়ের প্রক্রিয়া চলছে।

তিন বেসরকারি অপারেটরের অডিট করলেও কখনও সরকারি অপারেটর টেলিটকের অডিট করেনি বিটিআরসি।

এদিকে বেসরকারি অপারেটরগুলোকে দ্বিতীয় দফায় হালনাগাদ অডিট করতে নতুন উদ্যোগ নিচ্ছে বিটিআরসি কিন্তু এবারও নেই টেলিটক।

টেলিটককে কেন বিটিআরসি অডিট করছে না, সেই প্রশ্ন স্বয়ং ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের।

- Advertisement -

মোস্তাফা জব্বার সাংবাদিকদের বলেন, ‘টেলিটকের অডিট করা হয়নি এই দায় বিটিআরসিরও। নিয়ন্ত্রণ সংস্থার দায়িত্ব প্রত্যেকটি অপারেটরের অডিট করা । টেলিটক হতে পাওনা আদায় করা হবে কীভাবে সেটা পরের প্রশ্ন, কিন্তু অডিট করে তো দেখতে হবে তাদের অবস্থাটা কী, কোথাও অনিয়ম আছে কিনা।’

টেলিটক নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে মন্ত্রী বলেন, ‘২০১৭ সালের টেলিটকের জন্য ১ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলারের লোন আসছে দক্ষিণ কোরিয়া থেকে। অথচ সেই লোনের কোনো প্রজেক্টই বানানো হয়নি ২০২৩ সাল পর্যন্ত। অথচ আমার ফাইজি প্রকল্প একনেক হতে ফেরত আসছে আমার বৈদেশিক মুদ্রা নেই বলে। অথচ ১ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলার পরে রয়েছে। এখনও পর্যন্ত যারা লোন দেয়ার তারা পেছনে পেছনে ঘুরে বেড়াচ্ছে, আর আমাদের লোকজন ডিপিপি বানাতে পারেনি। আরও একটি চাইনিজ কোম্পানি, তারাও বিলিয়ন ডলার নিয়ে বসে আছে। কিন্তু এটাকে যে কার্যকর করবে সেই জায়গাটায় যেতে পারে না। এই অবস্থার মধ্যে দিয়ে চলছে টেলিটক।’

মোস্তাফা জব্বার বলেন, অন্য অপারেটরগুলোর মতেই বিটিআরসিকে টেলিটকের অডিট করতে হবে।

টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এ. কে. এম. হাবিবুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, `আমাদের নিয়মিত সরকারি অডিট হয়। আর যেহেতু টেলিটক কোম্পানি তাই সিএ ফার্ম দিয়েও আরও একটি অডিট প্রতিবছর হয়। এছাড়া আমাদের নিজেদের ইন্টারনাল অডিট ডিপার্টমেন্ট আছে তারাও অডিট করে থাকে।’

‘নিয়ন্ত্রণ সংস্থা হিসেবে বিটিআরসির যদি অডিট করতে হয় তাহলে তো করবে। সেক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণ সংস্থাকে আমাদের দিক হতে সহযোগিতা থাকবে’ বলেন টেলিটক এমডি।

- Advertisement -

বিটিআরসির কমিশনার (অর্থ, হিসাব ও রাজস্ব) ড. মুসফিক মান্নান চৌধুরী সাংবাদিকদের জানান, ‘বিটিআরসি বিগত কয়েক বছর ধরে অডিট করছে, যেগুলোর অডিট হয়নি তাও এখন শুরু করা হয়েছে। টেলিটক সরকারি লাইসেন্সি। আমার আগে যারা ছিলেন তারা টেলিটকের অডিটের পদক্ষেপ নেননি।’

‘তবে কমিশনের দায়িত্ব ফেয়ার পলিসি অনুযায়ী অডিট করা। এখন কমিশন যদি নির্দেশনা দেয় তাহলে শিগগির এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেবেন তিনি।’

বিটিআরসির অডিটের হালচিত্র :

- Advertisement -

মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর মধ্যে গ্রামীণফোনের ১৯৯৭ সাল হতে ২০১৪ সাল পর্যন্ত অডিট করেছে বিটিআরসি । এতে অপারেটরটির কাছে ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা অডিট আপত্তি বের হয়। রবিতেও ১৯৯৭ সাল হতে ২০১৪ সাল পর্যন্ত অডিট করা হয়েছে। এতে অপারেটরটির কাছে পাওনা দাবি ৮৬৭ কোটি ২৪ লাখ টাকা। বাংলালিংকে ১৯৯৬ সাল হতে ২০১৯ সাল পর্যন্ত অডিট করা হয়েছে। এতে আপত্তি বের হয় ৮২৩ কোটি ৫ লাখ ৬ হাজার ১৫৫ টাকা

দেখা যাচ্ছে, গ্রামীণফোন-রবির অডিট ছাড়া সময়কাল ৯ বছর করে। বাংলালিংক অডিট ছাড়া ৪ বছর এবং টেলিটক ১৯ বছর।

এনটিটিএন অপারেটরগুলোর মধ্যে ফাইবার অ্যাট হোমের কার্যক্রম শুরু হতে অডিট হয়নি। এ সময়কাল ১৮ বছর। সামিট কমিউনিকেশন্সেরও একই সময়। বাহনের এখনও রোলআউট অবলিগেশন পূর্ণ হয়নি।

আইটিসি অপারেটরগুলোতে দেখা যাচ্ছে, ফাইবার অ্যাট হোম, সামিট কমিউনিকেশন্স, নভোকম, ওয়ান এশিয়া এলায়েন্স কমিউনিকেশন্স, বিডি লিংক কমিউনিকেশন্স ও ম্যাংগো টেলিসার্ভিসেসের লাইন্সে প্রাপ্তির সময় হতে অডিট হয়নি। এ সময়কাল ১১ বছর।

প্রতিষ্ঠার পর হতে কোনো অডিট হয়নি আইআইজি অপারেটরগুলোরও। এক্ষেত্রে একটি প্রতিষ্ঠান ১০ এবং দুটি প্রতিষ্ঠান ১৫ বছর ছাড়া বাকিদের অডিট ছাড়া সময়কাল ১১ বছর করে। এ খাতে কোম্পানি রয়েছে ৩৪ টি। অডিট হয়নি ন্যাশনওয়াইড আইএসপিগুলোরও। এখানে কোম্পানি রয়েছে ১২৪ টি।

আর টাওয়ার কোম্পানি ইডটকোর অডিটে কার্যক্রম শুরু করতে সবকিছু গুছিয়ে এনেছে নিয়ন্ত্রণ সংস্থাটি।

Subscribe

Subscribe to our newsletter to get our newest articles instantly!

ফলো করুন

সোশ্যাল মিডিয়াতে আমাদের সাথে থাকুন
জনপ্রিয় খবর
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *