fbpx
Ad imageAd image

কিশোরগঞ্জে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মোটর সাইকেল ছিনতাই

কিশোরগঞ্জ পোস্ট
কিশোরগঞ্জ পোস্ট
কিশোরগঞ্জে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মোটর সাইকেল ছিনতাই

কিশোরগঞ্জ সদরের মারিয়া ইউনিয়নের পূর্ব করমূলী গ্রামের সংখ্যালঘু সম্প্রদায় প্রণয় কুমার রায়ের একমাত্র ছেলে প্রীতম রায় (হৃদয়) এর মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে।

প্রণয় কুমার রায় কিশোরগঞ্জ পোস্ট কে জানান, পূর্ব শত্রুতার জের নিয়ে তার ছেলে প্রীতম রায় (হৃদয়) এর সাথে একই ইউনিয়নের ফজলুর রহমানের ছেলে আতাউর রহমান আশিষের কয়েক দফা কথা কাটাকাটি হয় এবং তারা গ্রামের সংখ্যালঘু সম্প্রদায় হওয়ায় তার ছেলে কে বিভিন্ন হুমকিও দেয়া হয়। 

তিনি আরো জানান, আতাউর রহমান আশিষ একজন চাঁদাবাজ এবং মাদকাসক্ত। মারিয়া ইউনিয়নবাসীর কাছে সে একজন চাঁদাবাজ হিসেবে পরিচিত। তার ভয়ে এলাকাবাসী সবসময় চুপ থাকে এবং প্রতিবাদ করতে ভয় পায়।

গত শুক্রবার (৫ জুলাই) রাত ১.৩০ মিনিটে  প্রীতম রায় (হৃদয়) যখন করমূলী বাজার থেকে মোটরসাইকেলে চড়ে তার বাড়ির সামনের মাছের ফিসারির কাছে আসা মাত্রই আতাউর রহমান আশিষসহ আরও অজ্ঞাতনামা ৪-৫ জন তাকে আটকিয়ে অস্ত্রের মুখে মোটর সাইকেল ছিনতাই করে। 

- Advertisement -

প্রীতম রায় (হৃদয়) কিশোরগঞ্জ পোস্ট কে জানান, পূর্ব শত্রুতার জের নিয়ে প্রথমে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে চাঁদাবাজ আতাউর রহমান আশিষ ও তার বাহিনী। উক্ত বিষয়ে প্রতিবাদ করলে চাঁদাবাজ আতাউর রহমান আশিষ ও তার বাহিনী তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে মারধর করেন তাকে আহত করে। একপর্যায়ে তিনি চেতনাশক্তি হারিয়ে ফেলেন, এই সুযোগে তাকে চাঁদাবাজ আতাউর রহমান আশিষ ও তার বাহিনী মিলে টানা-হেঁচড়ায় মোটরসাইকেল থেকে ফেলে দেন এবং তার মোটরসাইকেল নিয়ে চলে যান।

সংখ্যালঘু সম্প্রদায় হওয়ায় চাঁদাবাজ আতাউর রহমান আশিষ ও তার বাহিনী প্রীতম রায় (হৃদয়) কে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চলে যান।

কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানায় অভিযোগ পত্র এবং অভিযোগকারী প্রীতম রায় হৃদয়

যখন প্রীতম রায় (হৃদয়) এর চেতনা ফিরে তৎক্ষণাত তিনি বিষয়টি পুলিশকে জানায়। তিনি কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত মোটর সাইকেলের কোন সন্ধান উদ্ধার করতে পারেনি থানা পুলিশ।

তবে এ ব্যপারে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ জানায়, মোটর সাইকেল উদ্ধারের জন্য তাদের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

Subscribe

Subscribe to our newsletter to get our newest articles instantly!

ফলো করুন

সোশ্যাল মিডিয়াতে আমাদের সাথে থাকুন
জনপ্রিয় খবর
মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *